স্কুলের ক্লাসরুমের মধ্যে যুবক ছাত্রের সঙ্গে রোম্যান্টিক গানে অন্তরঙ্গ রোম্যান্সে নাচলেন শিক্ষাকা, ভাইরাল ভিডিও

রোজকার বিনোদনে জায়গা নিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। প্রতিদিন অবাক করা কত কিছুই যে চোখে পড়ে! বিশেষত করোনাকালীন ঘরবন্দী দশায়,

আরো বেশি করে মানুষের মন মজিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। এখন সব রকমের ভিডিও এই সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখা যায়।

মন ভালো করা ভিডিও থেকে শুরু করে সব রকমের ভিডিও। সেই সময়েই তরুণ ছাত্রকে জড়িয়ে এক শিক্ষিকার তুমুল নাচের ভিডিও ভাইরাল,

হয়ে ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এখনও পর্যন্ত তা নেটমাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে। একজন শিক্ষক হলেন সমাজ তৈরীর কারিগর। কেননা তারাই পরম যত্নে গড়ে তোলেন ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে। তাই ছাত্র ছাত্রীর সাথে শিক্ষকের সম্পর্ক বরাবরই শ্রদ্ধা, স্নেহ এবং ভালোবাসার। বিগত আড়াই বছর ধরে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকার পর ফের করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে খুলতে শুরু করেছে শিক্ষাপ্রাঙ্গন। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ইনস্টিটিউশনের পোশাক পরিহিত অবস্থায় নাচ-গানের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে এইবার স্কুলপ্রাঙ্গণ থেকে উঠে এল এই ভিন্ন ধরনের ভিডিও। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি স্কুলে সম্ভবত কোন অনুষ্ঠান চলছে।  পেছনে বাজছে বিখ্যাত হিন্দি আইটেম সং ‘ও সাকি সাকি রে’ আর সেই গানের তালে তাল মিলিয়ে এক ছাত্রের সাথে তুমুল নাচ জুড়েছেন স্কুল শিক্ষিকা। কালো রংয়ের শাড়ি এবং কালো রংয়ের স্লিভলেস ব্লাউজ পরিহিত অবস্থায় খোলা চুলে শিক্ষিকাকে নাচ করতে দেখা গেছে ওই শিক্ষাপ্রাঙ্গনেই স্কুলড্রেস পরা এক ছাত্রের সাথে।

কোনো এক জনৈক ব্যক্তি সেই পারফরম্যান্স মুঠোফোনে বন্দি করে ইউটিউবে আপলোড করতেই দর্শক সংখ্যা ছাড়িয়েছে কয়েক হাজার। দর্শকেরা মোটেই ভালোভাবে নেননি ভিডিওটিকে। কমেন্ট বক্সে অনেকেই ভিডিওটির তুমুল সমালোচনা করেছেন। ভিডিওটি যথেষ্ট দৃষ্টিকটু এবং আচরণবিরূপ বলেই দাবি বেশিরভাগ জনগণের। মধ্যপ্রদেশের একটি কোএড স্কুলের টিচার্স ডে-র ভিডিও বলে জানা যাচ্ছে। যেখানে শিক্ষিকা নাচ করছেন সেখানে পিছনে ক্লাসরুমে দেখা গেছে রাংতা-কাগজ, বেলুন দিয়ে সুন্দর করে সাজানো হয়েছে। তবে এর সাথে শ্রদ্ধা ও সংস্কৃতির ছিঁটেফোঁটা নেই। বরং এক শিক্ষিকা উদ্দাম নেচে ক্লাসরুমে তুমুল উত্তেজনা ছড়ালেন। সোশ্যাল মাধ্যমে ভিডিওটি ভাইরাল হতেই কুমন্তব্যে মুখর হয়ে ওঠেন নেটিজেনরা।

ভিডিওটির কমেন্ট বক্সে উড়ে-আসা নানান সমালোচক মন্তব্যের মধ্যে অন্যতম হলো, ‘এমন নাচ করার পরনিশ্চয়ই ঐ শিক্ষিকাকে আর স্কুলে রাখা হবে না’, অন্যদিকে অপর একজন লিখেছেন, ‘এই ধরনের আচরণ কোনো শিক্ষিকার কখনোই করা উচিত নয়’। সকলেরই প্রশ্ন–এ কেমন টিচার! যিনি টিচার্স ডে-র দিন ভরা ক্লাসরুমে এইভাবে ছাত্রের হাত কোমরে জড়িয়ে উদ্দাম নাচ জুড়েছেন! সমালোচকরা অবশ্য ছাত্রকে নয়, শিক্ষিকাকেই দোষারোপ করেছেন। একজন শিক্ষিকা এবং ছাত্রের মধ্যে যে সর্বদা সশ্রদ্ধ-ভক্তি নিষ্ঠার সম্পর্ক বজায় থাকা উচিত এমনটা সকলেরই দাবি। বর্তমানে ভিডিওটি ইউটিউবে Ashu Kaushik নামের একটি চ্যানেল থেকে ভাইরাল হয়েছে। ১৫৬ হাজার মানুষ বর্তমানে এই ভিডিওটি দেখেছেন আর লাইক করেছেন ২.৩ হাজার মানুষ। এই ভিডিও দু’বছর পুরনো কিন্তু পুনরায় ভিডিওটি খুব পরিমাণে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচক মন্তব্য তৈরি করছে।