বাবার সঙ্গে ব্যারাকপুরে পৌঁছে গেলো খুদে ইউভান, এলাকাবাসীদের সঙ্গে একরত্তির ঘুরে ঘুরে পরিচয় করলে তৃণমূল বিধায়ক

পরিচালক রাজ চক্রবর্তী এবং বাংলা চলচ্চিত্রের প্রথম সারির অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের পুত্র ইউভান বর্তমানে টলিপাড়ার অন্যতম সেলিব্রেটি।

প্রতিদিনই ইউভানের কোন না কোন খবর উঠে আসে আমাদের সামনে। জন্মের পর থেকেই রাজশ্রী পুত্র রাজ করে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মাধ্যমে।

এই ছোট্ট বয়স থেকেই সে হয়ে উঠেছে ইন্টারনেট সেন্সেশন। তার জনপ্রিয়তা এতটাই বেশি যে তাকে বলিউডের অন্যতম সেরা জুটি,

সাইফিনার পুত্র তৈমুরের সাথে তুলনা করা হয়। গত বছর ১২ই সেপ্টেম্বর রাজ শুভশ্রীর পরিবারে আসে নতুন সদস্য।

ইনি আর কেউ নন, রাজশ্রীর প্রথম ছেলে। সেদিন এই একরত্তি ছেলে দুজনের ভালোবাসার প্রতীক হয়ে ঘর আলো করে আসেন তাঁদের এই ছোট্ট ছেলে।

এই একরত্তির নাম দিয়েছেন ভালোবেসে ইউভান। ছেলের ভালো নাম ইউভান হলেও মা বাবা আর ঠাকুমা ভালোবেসে ডাকেন সিম্বা।

ছোট্ট সিম্বাকে নিয়ে নতুন বাবা মায়ের দিন রাত কেটে যায়। এখন এদের ইন্সটাগ্রাম খুললে শুধু রাজ শুভশ্রী নয় ছেলে ইউভানই রাজ করছে।

এই একরত্তির এখন থেকে সে মস্ত বড় সেলেব।তার নামেই খুলে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানান পেজ। এখন থেকেই চক্রবর্তী বাড়িতে রাজ করা শুরু করে দিয়েছে এই ছেলে।

পরিচালক রাজ চক্রবর্তী শুধু আর চলচ্চিত্র জগতের সাথে জড়িয়ে নেই। এখন তিনি একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বও বটে। ব্যারাকপুরের বিধায়ক হয়েছেন তিনি।

পরিচালক থেকে বিধায়ক হয়ে উঠেছেন রাজ চক্রবর্তী। এবারে, রাজের এক অনুরাগী একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন, যেখানে দেখা যাচ্ছে রাজ চক্রবর্তী,

ভোটের প্রচারের সময় তার ছেলের ছবি মোবাইলে সকলকে দেখাচ্ছে। অনেক বাচ্চা ইউভানের ছবি দেখে খুশি হয়।

রাজ নিজেও অনেক ছবি একের পর এক নিজের ফোন থেকে বের করে দেখান সকলকে। এইরকম ভিডিও সদ্য পোস্ট করে ওই অনুরাগী লেখেন,

“তখন অনেকে নাটক বলেছিলেন,দেখুন উনি এখনও পাল্টায়নি, বিধায়ক আছেন ঠিক আগের মতই”।

বিধানসভার ষষ্ঠ দফার ভোটে ব্যারাকপুর কেন্দ্র থেকে লড়েছেন রাজ। এইকদিনে রাজের উপর দিয়ে গিয়েছে অসংখ্য ঝড় ঝাপটা।

কাছে ছিলনা তার আদরের ছেলে বউ কেউই। ইউভানও মা বাবাকে বেজায় মিস করেছে কদিন। তাই ছেলের কাছে ফিরেই এতদিন ছেলেকে কাছে না পাওয়ার,

সমস্ত মনখারাপ উসুল করে নিয়েছেন রাজ চক্রবর্তী। তার মধ্যে শুভশ্রীও ছিলনা কাছে, তাই ছেলেকে একা পেয়ে কার্যত ‘অত্যাচার’ চালিয়েছেন রাজ।

আর ছেলেকে বলেছেন চুপচাপ বাবার অত্যাচার সহ্য করতে। তা অত্যাচারটা ছিল খানিকটা ছেলেকে চটকানো, চুম্বন।

সেই দৃশ্য রাজ ভিডিও করে সবাইকে দেখতে সুযোগ করে দিয়েছিলেন। ক্যামেরার সামনেই চুমুতে ভরিয়ে দিয়ে ছেলেকে বারবার বলেছেন তিনি চুপচাপ,

এই অত্যাচার সারাজীবন সহ্য করতে। কিন্তু তাতে টু শব্দটি করেনি ইউভান, লক্ষ্মী ছেলের মতো বাবার সব কথা শুনেছে ইউভান৷