জনপ্রিয় মঞ্চে গান গাইতে গাইতে অরুনিতাকে জড়িয়ে ধরে অন্তরঙ্গ রোম্যান্সে মাতলো পবনদ্বীপ, ভাইরাল ভিডিও

ইন্ডিয়ান আইডলের দৌলতে পবনদীপ রাজন ও অরুণিতা কাঞ্জিলাল নামটি সকলের কাছেই বেশ পরিচিত। সিজেন ১২ এর বিজেতা হয়েছে উত্তরাখন্ডের পবনদীপ।

আর বাংলার মেয়ে অরুণিতা পেয়েছে দ্বিতীয় স্থান। দুজনের মধ্যে অবশ্য পার্থক্য ছিল খুবই সুক্ষ, তাই শোতে দ্বিতীয় হলেও শ্রোতাদের কাছে বিজয়ী অরুণিতা।

দুর্দান্ত গানের পাশাপাশি এই অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ছিল অরুণিতা-পবনদীপের সম্পর্কের গুঞ্জন। যদিও ইন্ডিয়ান আইডলের পুরনো,

প্রতিযোগীদের দাবি এই সব কিছুই বানানো। সবটাই টিআরপি-র খেলা। তাছাড়া অরুনিতা কিংবা পবনদীপ দুজনেই এখনও পর্যন্ত এই সম্পর্কে সিলমোহর দেননি। তবে প্রেমের সম্পর্কে সিলমোহর না দিলেও একত্রে অনেকটা পথ হেঁটে যাবার পরিকল্পনা সেরেছেন অনেক আগেই। মুম্বাইতে ফ্লাট কেনার ইচ্ছা আছে দুজনের। এছাড়াও কেদারনাথ ভ্রমণের প্লানিংও রয়েছে। তবে সম্প্রতি দুজনের মেলবন্ধনের আরেক নতুন উদাহরণ সামনে এসেছে। ইল্ডিয়ান আইডল চলাকালীনই প্লেব্যাকের অফার পেয়ে গিয়েছে পবনদীপ ও অরুণিতা দুজনেই। ইন্ডিয়ান আইডলের পর ক্যাপ্টেনের স্থানে দেখা দিয়েছিলেন অরুনিতা আর পবনদীপ সুপারস্টার সিঙ্গারের মঞ্চে। আর সেখানেই তাদের নিয়ে একটি মজা করার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শুরুতেই দেখা যায় হিমেশ রেশমিয়া বলেন আমি তোমাকে একটা সহজ প্রশ্ন করছি, অরুনিতা তোমার কে হয় তুমি বলো? এই প্রশ্ন শুনেই দেখা যায় দুজন দুজনের দিকে তাকিয়ে হাসে তারা। সালমান আলী দিয়ে বলে ওঠে হ্যাঁ স্যার একদম ভালো প্রশ্ন করেছেন, প্লিজ বলো? এরপর দেখা যায় উত্তরটা অরুনিতা দেয়, স্যার আমরা দুজনে খুবই ভালো বন্ধু। তখনই হিমেশ রেশমিয়া বলেন আরে “আমি তো তোমাকে জিজ্ঞাসাই করিনি”। এ পাশ থেকে পবনদ্বীপ বলে ওঠে, স্যার আমরা খুবই ভালো বন্ধু আপনি তো দেখিয়েছেন যে দশটা মাস আমরা কিভাবে ছিলাম! এই কথা বলার সময় পবনদ্বীপের মুখে এক গাল হাসি দেখা যায়।

এভাবেই প্রত্যেকটা সময় তাদের সাথে মজা করা হয়। ইন্ডিয়ান আইডলের পর সুপারস্টার সিঙ্গারের মঞ্চেও পবনদ্বীপ আর অরুনিতাকে নিয়ে মজা করা হয়েছে হামেশা। আসলে তাদের এই জুটি পছন্দ করেনা এমন মানুষ মনে হয় খুবই কম। যেমন হিমেশ রেশমিয়া এখানে সোজা পবনদ্বীপ কে প্রশ্ন করে বসল যে অরুনিতা তোমার কে হয়? এমনকি দেখা যায় সুপারস্টার সিঙ্গার শুরু হওয়ার অডিশনের দিন একটি বাচ্চার গান অরুনিতার খুবই পছন্দ হয়। তাই সেই সময় অরুনিতা ভালোবেসে পবনদ্বীপকে বলে প্লিজ ইয়ার আমাকে দিয়ে দাও এই বাচ্চাটাকে। আর দেখা যায় যখনই অরুনিতা এরকম ভাবে বলে পবন দ্বপ আর ফিরিয়ে দিতে পারে না তাকে। এর থেকে এটা স্পষ্ট বোঝা যায় যে তাদের মধ্যে বন্ধুত্বটা কতটা ঘনিষ্ঠ। Crazytalk tik নামের ইউটিউব চ্যানেল থেকে সম্প্রতি এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে। গত চার মাস আগে ভাইরাল হওয়া এই ভিডিও বর্তমানে দেখেছেন ২.৪ মিলিয়ন মানুষ আর লাইক করেছেন কুড়ি হাজার মানুষ।