মাঝরাতে হঠাৎ করে অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার মৃত্যুর ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়ে নেটদুনিয়ায়, ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানায় প্রেমিক সব্যসাচী চৌধুরী

লড়াইয়ের আরেক নাম ঐন্দ্রিলা শর্মা। এই লড়াই নিজের সঙ্গে নিজের। বুধবার রাতে হঠাৎই সামাজিক মাধ্যমে অনেকে নানা কথা লিখতে শুরু করেন।

তাঁদের বক্তব্য ঐন্দ্রিলা ‘আর নেই’। অভিনেত্রীকে নিয়ে ভুয়ো খবর রটতেই ফুঁসে উঠলেন তাঁর বন্ধু সব্যসাচী গভীর রাতে ঐন্দ্রিলার বন্ধু,

সব্যসাচী এই পোস্টের প্রতিবাদ করেন লেখেন, “আরেকটু থাকতে দাও ওকে.. এসব লেখার অনেক সময় পাবে।” উল্লেখ্য অভিনেত্রীর মৃত্যুর,

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Aindrila Sharma (@aindrila.sharma)

এই ভুয়ো খবরে পা দিয়েছিলেন টলিউডের একাংশ অভিনেতা অভিনেত্রীরা। পরে অবশ্য তারা সে সমস্ত পোস্ট ডিলিটও করে দেয়। কিন্তু ততক্ষণে আগুনটা অনেক দূর ছড়িয়ে গিয়েছে। বর্তমানে এখনো পর্যন্ত ভেন্টিলেশন সাপোর্টেই রয়েছেন। কঠিন লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন মৃত্যুর সঙ্গে। হাওড়ার বেসরকারি হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে বর্তমানে ভেন্টিলেটর এবং আয়নোট্রপিক সাপোর্টে রয়েছেন অভিনেত্রী। অভিনেত্রীর বন্ধু পারমিতা সেনগুপ্ত সোশাল মিডিয়ায় লেখেন, “দয়া করে ভুয়ো খবর ছড়ানো বন্ধ করুন।

ঐন্দ্রিলা এখনও ভেন্টিলেশনে আছে।” এছাড়াও গাঁটছড়া ধারাবাহিকের অভিনেতা অনিন্দ্য লেখেন “সত্যি যাচাই করতে শিখুন। খালি এর ওর স্ট্যাটাস দেখে দিকেই হল?” শ্রুতি দাস লেখেন, “সব মিথ্যা করে বল আমি আছি… এখনও আছি।” বুধবার দিন সকালে হঠাৎ করে অভিনেত্রীর অবস্থা সংকটজনক হয়ে পড়ে। হার্ট অ্যাটাক আসে অভিনেত্রীর। তারপরে অভিনেত্রীকে CPR দেওয়া হয়েছে। আপাতত ভেন্টিলেশনের সাপোর্টেই রাখা হয়েছে তাকে। নতুন করে অ্যান্টিবায়োটিক চালু করা হয়েছে। স্ক্যান রিপোর্টে ধরা পড়েছে ব্রেইনের যেই দিক অপারেশন হয়েছে তার উল্টোদিকে রক্ত জমাট বাঁধতে শুরু করেছে ঐন্দ্রিলার।

সব্যসাচীঝুমুর ধারাবাহিক থেকে এই বন্ধুত্বের সূচনা শ্যুটিং-এর ফাঁকেই আড্ডা, তারপর ফোন, টেক্সট৷ এ ভাবে খুব অল্প সময়ের মধ্য়ে একে-অপরের খুব কাছাকাছি চলে এসেছিলেন ঐন্দ্রিলা ও সব্যসাচী৷ তবে সম্পর্ক শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই নেমে আসে নানা ঘাত প্রতিঘাত। কর্কট রোগ তাঁর শরীরকে ব্যতিব্যস্ত করে তুললেও বন্ধুর সাহচর্যে মানসিক শান্তি কখনও অধরা হয়নি, নিজেই এ কথা নানা সময়ে জানিয়েছেন ঐন্দ্রিলা ৷ কঠিন লড়াইয়ে কখনও তাঁর হাত ছাড়েননি সব্যসাচী। তাঁদের বিভিন্ন পোস্টে বারবার ফুটে উঠেছে তাঁদের অনবদ্য পারস্পরিক বোঝাপড়া ও হাতে হাত রেখে সব যুদ্ধজয়ের অঙ্গীকারের ছবি।